জলপাই ফল ও তেল খান, মাখুন, ঠান্ডা জনিত রোগ ও কোভিড ১৯ মহামারী থেকে বেঁচে থাকুন।

আসসালামুয়ালাইকুম ওয়ারাহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহু,

আজ আমরা জলপাই তেল ও ফলের জানা অজানা গুনাগুন আলোচনা করব।

জলপাই বা জয়তুন ফল ও তেলের উপকারিতা কমবেশী আমরা সবাই জানি। পবিত্র কোরআন শরীফে এও এই ফলের কথা উল্লেখিত আছে, সুরা ত্বীনে আল্লাহ পাক কসম খেয়েছেন  এই ফলের নামে। আমাদের প্রিয় নবীজি মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়সাল্লামের পছন্দের খাবারের তালিকায় অন্যতম এ জয়তুন ফল ও তেল বা যাকে আমরা অলিভ অয়েল নামে কমবেশী সবাই চিনি। আমাদের নবীজি এ জয়তুন ফল ও তেল শুধু খেতেনি না, চুলে দাড়িতে লাগাতেন এবং গায়ে মাখতেন এবং সাহাবাদেরকেও তা ব্যবহারের পরামর্শ দিতেন। হযরত ওমর ইবনে খাত্তাব রাযিঃ হতে বর্নীত, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর এরশাদ বর্নিত আছে যে, তোমরা জয়তুনের তেল খাও এবং শরীরে মালিশ (মাখো)কর, কেননা এটি বরকতময় গাছ থেকে আসে।(সহিহ তিরমিজি, আহমদ)

তো আসুন জেনে নেই কত ভাবে এটা আমাদেরএ কাজে লাগে বিশেষ করে এই করোনা মহামারীর সময়ে কিভাবে আপনাকে মহামারী প্রতিরোধ ও প্রতিকারেও ভূমিকা রাখতে পারে।

১, জয়তুন বা জলপাই ফল ও তেলে রয়েছে প্রচুর পরিমানে ভিটামিন সি, ভিটামিন ই এবং এন্টিইনফ্লামেটরি, এন্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান,যা খাওয়াতে ও ব্যবহারে ঠান্ডাজনিত যে কোন রোগের উপকার ও প্রতিরোধ সম্ভব এবং শুধু ব্যাক্টেরিয়া না এটিতে  ভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকর ভূমিকা পালন করে বিশেষ করে ইনফ্লুয়েঞ্জা জনিত রোগ (রেস্পিরেটরি সিন্সাইশিয়াল ভাইরাস এবং প্যারা ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস ৩) থেকে গবেষনায় প্রমাণিত। এটিতে যে হাইড্রক্সসিটাইরসল নামক ফেনল উপাদান আছে তা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বহুগুনে বাড়িয়ে দেয়। আর এইসব গুনাগুনের জন্য জলপাই ফল ও তেল রান্নায় ও খাবারে এই কোভিড ১৯  নামক ভয়াবহ মহামারী প্রতিরোধ এহং প্রতিকারে উল্লেখ্যোগ্য ক্ষমতা রাখতে সক্ষম।

২, ভিটামিন সি ছাড়াও অলিভ অয়েল ও জলপাই এ আছে ভিটামিন ই, এ, আয়রন, ক্যালসিয়াম যা কিনা  এলার্জিসহ ত্বকের বহুরোগ প্রতিরোধে ও প্রতিকারে ভূমিকা রাখে,  এমনকি ত্বক এর সুস্বাস্থ্য ছাড়াও এন্টি এজিং এবং  এন্টিক্যান্সার উপাদান থাকায় চুল ও দাড়িতে ব্যবহারে চুল ও দাড়ি পাকার প্রবণতা কমে যায়।

৩, নবীজি ও সাহাবিরা জয়তুনের ডাল মেসওয়াক করার জন্য ব্যবহার করতেন কেননা এতে থাকা  ভিটামিন সি ও ক্যালসিয়াম দাত ও মাড়ির সুসাস্থ্য বজায় রাখতে, ও হাড়ের ক্ষয় প্রতিরোধে  এবং পাকস্থলির বহুরোগ প্রতিরোধ ও প্রতিকার করে এবং এতে ডায়টারি ফাইবার থাকায় হজম শক্তি  বাড়ায়।

৪.  এতে উপস্থিত মনোয়ান্স্যাচুরেটেড ফ্যাটি এসিড হার্টের উপকারি কোলেস্টেরল (HDL) রক্তে বাড়ায় ও ব্যাড কোলেস্টেরল কমাতে সাহা্য্য করে ফলে ডায়াবেটিস, উচ্চরক্তচাপসহ হার্টের বহুরোগ ও স্ট্রোক প্রতিরোধ ও প্রতিকারেও উল্লেখ্যোগ্য ভূমিকা রাখে।

৫, জলপাই এ থাকা আয়রন  রক্তশুন্যতা কমাতে ও অন্যান্য খনিজ উপাদান,  এন্টিঅক্সিডেন্ট এলঝেইমার নামক স্মৃতিভ্রম রোগ প্রতিরোধ করে এবং ভিটামিন ই প্রচুর পরিমানে থাকায় প্রজনন ও যৌন স্বাস্থ্য বজায় রাখতে গুরূত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে সক্ষম। 

তো এভাবে এক্সট্রা ভারজিন ওলিভ ওয়েল  রান্নায় ব্যবহারে ও ফল হিসেবে জয়তুন বা জলপাই দৈনিক খাবারের তালিকায় যোগ করে আমরা করোনা মহামারীসহ বহু রোগ  প্রতিকার ও প্রতিরোধ করতে সক্ষম হব ইনশাআল্লাহ।

পরিশেষে উপরের আলোচনা থেকে আমরা তিন ভাবে জলপাইয়ের ব্যবহার শিখলাম।।

১। ফল হিসেবে প্রতিদিন খাবারের তালিকায় রাখা ।

২। অলিভ অয়েল রান্নায় ব্যবহার করা ও ত্বক, চুলের যত্নে ব্যবহার করা।

৩। মিসওয়াকে জয়তুনের ডাল ব্যবহার করা।

৪।ঔষধ হিসেবে ইনফার্টিলিটি ও ডিস্লিপিডেমিয়া সহ বহু ব্যাক্টারিয়াল ও ভাইরাল ইনফেকশন এর চিকিৎসা করা।

ডাঃ এইচ হাসান,

গবেষক ও লেখক,

ডক্টরিংস হেলথ কেয়ার সেন্টার।

ওয়াসালামুয়ালাইকা ওয়ারাহমাতুল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.